Tuesday 30 January

পৃথিবীর ইতিহাসে ১০ টি শক্তিশালী ভূিমকম্প!

প্রাকৃতিক দুর্যোগের  কথা আসলেই আমাদের মাথায় যে দুর্যোগ গুলোর  নাম প্রথমে  আসে তার মধ্যে অন্যতম হল ভূমিকম্প। মুহূর্তেই যা সব ধ্বংস করে দিয়ে যায়। ভূমিকম্পের পূর্বাভাস জানার কোন প্রযুক্তি না থাকায় দুর্যোগ পূর্ববর্তী কোন ব্যবস্থাও গ্রহণ করা যায় না। তাই এর ক্ষয়-ক্ষতিও অনেক বেশী হয়ে থাকে। আসুন জেনে নেই পৃথিবীতে হানা দেওয়া ১০ টি শক্তিশালী ভূমিকম্প সম্পর্কে -
 
১.চিলি- ২২ মে ১৯৬০
১৯৬০ সালে দক্ষিণ চিলিতে আঘাত  হানে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ছিল ৯.৫। এই ভূমিকম্পে প্রায় ৫০০০ মানুষ  নিহত ও আহত হয় এবং ২ মিলিয়ন মানুষ গৃহহীন হয়। এই ভূমিকম্পের ফলে পুয়ের্তো সাভেদ্রা বন্দর ধ্বংস হয়ে যায় ডলার হিসেবে যে ক্ষতির পরিমাণ ছিল  ৫৫০ ডলার।
 
২.প্রিন্স উইলিয়াম সাউন্ড আলাস্কা- ২৪ মার্চ  ১৯৬৪
রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৯.২।আলাস্কা উপসাগর এই ভূমিকম্পের কারনে উত্তাল হয় ফলে ব্যাপক ভূমিধ্বস হয় এবং ৬৭ মিটার সুনামির সৃষ্টি হয়। এই সুনামিতে ১২৮ জন মানুষ নিহত হয় এবং ৩১১ মিলিয়ন ডলার অর্থনৈতিক ক্ষতি হয়।
 
৩.উত্তর সুমাত্রার পশ্চিম উপকূল -২৬ ডিসেম্বর ২০০৪
রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৯.১।ভারতীয় টেকটনিক প্লেটটি বার্মিজ টেকটনিক প্লেটের নিচে চাপা পড়ার কারনে এই ভূমিকম্প অনুভূত হয় এর ফলে সৃষ্টি হয় ইতিহাসের সবচেয়ে মারাত্মক সুনামির যা এশিয়া ও পূর্ব আফ্রিকার ১৪ টি দেশে আঘাত হানে।এই সুনামিতে সবচেয়ে মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ইন্দোনেশিয়া, প্রায় ১৭০০০০ মানুষ নিহত হয়।
 
৪.কামচাটকা-৪ নভেম্বর ১৯৫২
রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল । এই ভুমিম্পের কেন্দ্রের কাছে ছিল রাশিয়ার কাচকামটা উপদ্বীপ। তিন হাজার মাইল-জুড়ে অনুভূত হয়েছিল এই ভূকম্পন, যা রাশিয়ার দূরপ্রাচ্য হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জে অনুভূত হয়েছিল। তবে এই ভূমিকম্পে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি। পেরু চিলিতেও আঘাত হেনেছিল এই ভূমিকম্প।
 
৫.আরিকা ,পেরু-১৩ আগস্ট ১৮৬৮
 রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ।এই ভূমিকম্পরে ফলে এ সুনামি সৃষ্টি হয় তা হাওয়াইয়ান দীপপুঞ্জ পর্যন্ত অনুভূত হয়েছিল। দক্ষিণ আমেরিকার আরেকুইপা শহরে এটি প্রবল আঘাত হানে যার ফলে ২৫০০০ হাজার মানুষ নিহত হয়।
 
৬.উত্তর প্রশান্ত মহাসাগর আমেরিকা-২৬ জানুয়ারি ১৭০০
রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ।এই উত্তর আমেরিকায় আঘাত অন্যতম ভয়াবহ ভূমিকম্প।উত্তর আমেরিকানদের মুখে মুখে ছড়িয়ে আছে এই ভূমিকম্পের কথা । এই ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্টি হওয়া সুনামি পাচেনা উপসাগরের বাসিন্দাদের ধ্বংস করে দেয়।
 
৭.চিলি -২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১০
রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৮.৮। ১৬ শতাব্দীর  থেকেই কনসিপিসিয়নের চারপাশের অঞ্চলকে সিস-মিক শকের কেন্দ্র হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে।কিন্তু এগুলোর মধো কয়েকটি ভয়াবহ ভূমিকম্পের আকার ধারণ করে যার ফলে ৫২১ জন প্রাণ হারায়,১২০০০ মানুষ আহত হয় এবং ৮ লাখ মানুষ ঘর ছাড়া হয়।
 
৮.ইকুয়েডর উপকূল-১৯০৬
রিখটার স্কেলে এই এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৮.৮।এই ভূমিকম্পের সৃষ্টি হওয়া সুনামি ১৫০০ জনে প্রাণ কেড়ে নেয়।
 
৯.লিসবন-১ নভেম্বর ১৭৫৫
লিবসনের প্রায় সব কিছু ধ্বংস করে দিয়েছিল, ভূমিকম্পের কারনে মোট জনসংখ্যার এক চতুর্থাংশ  মানুষ নিহত হয়েছিল।
 
১০.আসাম তিব্বত- ১৫ আগস্ট ১৯৫০
রিখটার স্কেলে এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৮.৬।তিব্বতের রিমাতে ৭০ টি গ্রাম নিশ্চিহ হয়ে যায় তবে ভারতের আসামে এই ভূমিকম্প ব্যাপক ভয়াবহ আকার ধারণ করে।ভূমিকম্পের ফলে যে ভূমিধ্বসের সৃষ্টি হয় তাতে ১৫০০ মানুষ নিহত হয়।
 
সপ্নঘুড়ির সাথে থাকার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ । আমাদের পোস্ট গুলো যদি ভালো লেগে থাকে বা ইনফরমেটিভ হয় তাহলে প্লিজ শেয়ার করুন আপনার বন্ধু দের সাথে ।
       "স্বপ্ন দেখুন, স্বপ্ন নিয়েই বাচুন, অন্যের স্বপ্ন কে উৎসাহ দিন"