Monday 11 December

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নামক বোম

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নামক বোম!
জানেন কি বর্তমান প্রযুক্তির দুনিয়াতে সবচেয়ে ধামাকা বোম কি?আসুন একনজর এ জেনে নেই সেই বোমটি কি?
র্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নামক বোম । এটি নিয়ে আমি অনেক দিন ভাবছিলাম আসলে এটি কি ?আমি মনে করলাম এটি হইত কোনো সাবজেক্ট এর নাম। অনেকদিন পর আমার এক বিদেশী বন্ধু আমাকে বললো এটি অনেক বড় একটি প্লাটফর্ম প্রযুক্তির দুনিয়াতে যা নিয়ে গুগল অনেক মাতাচ্ছে বর্তমান জেনারেশনকে যা ভেবে উঠাই আশ্চর্য জনক হয়ে উঠেছে । এবার এটি নিয়ে একটু খোলাসা আলোচনা করি।
 
আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স এর পরিচিতি
আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স মানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ।এটি একটি মেশিন এর মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়। বিপরীতপক্ষে বলা যাই, প্রাকৃতিক বুদ্ধি প্রদর্শিত হয় মানুষের এবং অন্যান্য প্রাণী দ্বারা। কম্পিউটার বিজ্ঞানের এই গবেষণা “বুদ্ধিমান এজেন্ট” এর গবেষণা হিসাবে সংজ্ঞায়িত করা হয়: যেকোন ডিভাইস যা তার পরিবেশের অনুধাবন করে এবং এমন কিছু পদক্ষেপ নেয় যা কিছু লক্ষ্য অর্জনে তার সাফল্যের সুযোগকে সর্বোচ্চ করে তোলে। প্রকৃতপক্ষে বলা যায়, যে শব্দ  “কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা” প্রয়োগ করে যখন একটি মেশিন “জ্ঞানীয়” ফাংশনগুলিকে মানানসই করে দেয় যা মানুষ অন্যান্য মানুষের মন যেমন “শিক্ষণ” এবং “সমস্যা সমাধান” হিসাবে সংযোজন করে। ইন্টারনেটের মাধ্যমে উদ্ভাবিত নতুনত্বটি আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রার কাছাকাছি AI নিয়ে এসেছে। এই অগ্রগতি, প্রযুক্তির সম্ভাব্য সামাজিক-অর্থনৈতিক এবং নৈতিক প্রভাবগুলির মধ্যে আগ্রহের পাশাপাশি, বহু সমসাময়িক বিতর্কগুলির ক্ষেত্রে ও AI কে এগিয়ে নিয়ে এসেছে। AI তে শিল্পের বিনিয়োগ দ্রুত বাড়ছে , যদিও ইন্টারনেট ভিত্তিক বিষয় গুলোতে AI নতুন নয়, বর্তমান ইন্টারনেটের প্রবণতা ভবিষ্যতের উন্নয়নে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। এটি ভালোভাবে জানতে ও কাজ করতে হলে প্রথম এ মেশিন লার্নিং ,ডাটা মাইনিং আরও অনেক কিছু জানা লাগে । এর জন্য বিশাল একটি ওপেন সোর্স আছে Tensor Flow (Machine learning connected )
 
আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সকে দুইটা ভাগে ভাগ করা হয়েছে । যেমন -
. Robotic Process Automation
. Cognitive Computing
 
Cognitive Computing  নিয়ে কিছু কথাঃ
cognitive computing প্রযুক্তিগত প্ল্যাটফর্মে বর্ণনা করে, যা ব্যাপকভাবে বলছে, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং সংকেত প্রক্রিয়াজাতকরণের বৈজ্ঞানিক নিয়মানুবর্তিতাগুলির উপর ভিত্তি করে।
 
আমাদের জানা উচিত AI কীভাবে কাজে লাগানো হচ্ছে:
যদিও AI এর Limitations গুলো এখন ও সব টা Identify করা হয়নি , তবুও AI ইতিমধ্যে অনেক ব্যবহার রয়েছে, যেমন -
  • Email filtering: ইমেইল পরিষেবাগুলি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে ইমেলগুলি ফিল্টারের মাধধমে “স্প্যাম” হিসাবে ইমেলগুলি চিহ্নিত করে তাদের স্প্যাম ফিল্টারগুলি প্রশিক্ষণ দিতে পারে।
  • Personalization: অনলাইন পরিষেবা AI ব্যবহার করে মানুষের প্রাসঙ্গিক বিষয়বস্তুর Record করার জন্য আগের কেনাকাটা এবং অন্যান্য ব্যবহারকারীদের কেনাকাটার থেকে বুঝতে A ব্যবহার করছে , যেমন Amazon বা Netflix।
  • Fraud detection: কারো অ্যাকাউন্টে অদ্ভুত কার্যকলাপ থাকলে ব্যাংকগুলি AI ব্যবহার করে তার প্রমাণ খুঁজে বের করছে। অপ্রত্যাশিত কার্যকলাপ, যেমন বিদেশী লেনদেন, এলগরিদম ব্যবহার করে AI কে কাজে লাগিয়ে বন্ধ করছে ।
  • Speech recognition: AI অ্যাপ্লিকেশন মানুষের কথা ও নির্ভুল ভাবে উপস্থাপন করছে। উদাহরণ হিসেবে আমরা intelligent personal assistants, যেমন আমাজন এর “আলেক্সা” বা অ্যাপল এর “সিরীয়” এর কথা মনে করতে পারি।
শেষ বক্তব্য -

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স অনেক কার্যকারী মানুষ এর জন্য । এটি অনেক হেল্পফুল একটি অংশ বর্তমান এ যা ভাবতেই অবাক লাগে। এটি শিক্ষা খাতে,চিকিৎসা খাতে এবং গেইম এর খাতেও অনেক ভুমিকা রেখেছে। গুগল ও একটি সিধান্ত নিয়েছে যে এটির উপর একটি কোর্স করাবে। আপনারা এটির বিষয় আরও জানতে ফেসবুক এ একটি জনপ্রিয় গ্রুপ আছে । সেটা হলঃ Artificial Intelligence & Deep Learning.

 আমার উক্তি প্রযুক্তি নিয়েঃ
নতুন প্রযুক্তির সাথে তাল মিলিয়ে আরও প্রযুক্তি প্রবণ হয়ে উঠুন

 

সপ্নঘুড়ির সাথে থাকার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ । আমাদের পোস্ট গুলো যদি ভালো লেগে থাকে বা ইনফরমেটিভ হয় তাহলে প্লিজ শেয়ার করুন আপনার বন্ধু দের সাথে । স্বপ্ন দেখুন, স্বপ্ন নিয়েই বাচুন, অন্যের স্বপ্ন কে উৎসাহ দিন ।