Thursday 14 December

রাশিয়া ফুটবল ২০১৮ বিশ্বকাপের দৌড়ে কে আছে এগিয়ে ? ( আর্জেন্টিনা পর্ব

রাশিয়া ফুটবল ২০১৮ বিশ্বকাপের দৌড়ে কে আছে এগিয়ে ? ( আর্জেন্টিনা পর্ব )
৪ বছর পেরিয়ে আবার দরজায় টোকা দিচ্ছে ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে বড় আসর বিশ্বকাপ। দীর্ঘ বাছাইপর্বের পর অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে চিলি,ইতালি,নেদারল্যান্ডের মতো দলের বাদ যাওয়া কিংবা আর্জেন্টিনার খুড়িয়ে বাছাইপর্ব পার হওয়া ইতিমধ্যেই বেশ নাটকীয় এক আসরের ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছে। তাহলে চলুন দেখা যাক আসন্ন ২০১৮ বিশ্বকাপের কিছু দলের অবস্থান, আর কে আছে এগিয়ে সেরাদের সেরা হওয়ার দৌড়ে ! – আজ আমরা জানবো এ পর্বের প্রথম দল আর্জেন্টিনার ২০১৮ বিশকাপ জয়ের সম্ভাবনা নিয়ে।
১. আর্জেন্টিনা
পারলে মেসিই পারবে। হ্যা, সোজা কথায় বলতে গেলে আর্জেন্টিনা কে কেউ যদি এখন শিরোপা এনে দিতে পারে তবে সেটি কেবল মাত্র মেসিই। টানা কয়েকটি ইন্টারন্যাশনাল ফাইনালে হারের পর হতাশা থেকেই জাতীয় দল থেকে অবসর ঘোষণা তারপর ভক্তদের অনুরোধে আবার ফিরে এসে আর্জেন্টিনা কে বাছাইপর্বের খাঁদ থেকে পার করা মেসি নিশ্চয়ই ২০১৮ বিশ্বকাপ জয়ের জন্য ব্যকুল হয়ে আছেন। আর এবার আছেন ও ফর্মের তুঙ্গে। সাথে আর্জেন্টিনা দলে দিবালার মতো তরুণ তুর্কি। আগুয়ারো, মাসচেরানো, ওটামেন্ডি, বানেগা দের নিয়ে গড়া আর্জেন্টিনা টিম হয়তো চাইবে মেসির জন্য হলেও ২০১৮ বিশ্বকাপ জিততে। যদিও বেশ কস্টসাধ্যই হবে আর্জেন্টিনার ২০১৮ বিশ্বকাপ দৌড়।  
গ্রুপ পর্বে আর্জেন্টিনা পেয়েছে নাইজেরিয়া, আইসল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়াকে । নাইজেরিয়া বরাবরই আর্জেন্টিনার কঠিন প্রতিপক্ষ। এমনকি শেষ দেখায় নাইজেরিয়ার সাথে ২ গোলে এগিয়ে থেকেও আর্জেন্টিনা শেষ পর্যন্ত ৪ টি গোল হজম করেছে। নাইজেরিয়া টীমের গতির সাথে সমান ভাবেই পাল্লা দিতে হবে মাসচেরানো, ওটামেন্ডি দের।  আর নতুন আসা আইসল্যান্ড ও গ্রুপ পর্বে তাদের সামর্থ্যের পরিচয় দিয়ে এসেছে। তারাও ছেড়ে কথা বলবেনা আর্জেন্টিনা কে। আর ক্রোয়েশিয়া ও ব্যলেন্সড একটি টিম। রাকিটিচ রাও নিশ্চয় চাইবে আর্জেন্টিনা কে বাছাইপর্বে থেকেই বাড়িতে পাঠজেতে। শেষ ১৬তে যেতে।
কয়েক যুগ ধরে ইন্টারন্যাশনাল ট্রফির মুখ না দেখা আর্জেন্টিনার ভক্ত রাও মুখিয়ে আছে একটি শিরোপার জন্য। আর এবারের আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ মিশনে অবশ্যই কোচ সাম্পাওলির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। গত ২ বছরে কোন কোচই আর্জেন্টিনার কোচের চেয়ারে থিতু হতে পারে নাই। শেষ পর্যন্ত সাম্পাওলির উপরেই ফেডারেশন ভরসা রেখেছে আর সেই ভরসার প্রতিদান দেওয়ার কিছু পূর্বাবাশ ও সাম্পাওলি দিয়ে রেখেছে। দেখা যাক সাম্পাওলির যাদু বিশ্বকাপ মঞ্চে কেমন কাজে লাগে।
 
আহত সিংহ সবসময় ভয়ংকর হয়। মেসিরাও ট্রফি হারাতে হারাতে আহত সিংহের মতো হয়ে আছে। শেষ ছোবল টা হয়তো মেসিরা ২০১৮ বিশ্বকাপের দিকেই দিবে। সবদিক বিবেচনা করা আর্জেন্টিনার যথেষ্ট সম্ভাবনা আছে পুতিনের দেশ থেকে ২০১৮ এর বিশ্বকাপ নিয়ে আসা। বাকিটা সময়েই বলে দিবে, আমরা ভক্তরা অপেক্ষায় আছি কেবল কবে ফুটবলের রাজা মেসির হাতে রাজার মুকুট টা দেখবো।
 
বিশ্বকাপ শুরুর এক সপ্তাহ আগে রাশিয়া পৌঁছাবে আর্জেন্টিনা দল। ব্রনিৎসি অনুশীলন মাঠে অনুশীলন করবেন মেসি-মাচেরানো, দিবালারা। এক সপ্তাহের অনুশীলন শেষে ১৬ জুন আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে সাম্পাওলির শিষ্যরা। আইসল্যান্ডের ম্যাচের উপরই আর্জেন্টিনার পরিচয় আশা করি কিছু টা পরিষ্কার হয়ে যাবে আসলেই কি ২০১৮ বিশ্বকাপ হাতে তোলার মত যোগ্য নাকি তারা ! সেই পর্যন্ত আমাদের রইলো আর্জেন্টিনা টিমের জন্য শুভ কামনা।
সপ্নঘুড়ির সাথে থাকার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ । আমাদের পোস্ট গুলো যদি ভালো লেগে থাকে বা ইনফরমেটিভ হয় তাহলে প্লিজ শেয়ার করুন আপনার বন্ধু দের সাথে । স্বপ্ন দেখুন, স্বপ্ন নিয়েই বাচুন, অন্যের স্বপ্ন কে উৎসাহ দিন ।